উইঘুর নির্যাতনে জড়িত চীনা কর্মকর্তাদের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

উইঘুর নির্যাতনে জড়িত চীনা কর্মকর্তাদের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

চীনের জিনজিয়াং প্রদেশে উইঘুর ও সংখ্যালঘুদের নির্যাতনে জড়িত চীনা কর্মকর্তাদের ওপর নতুন করে একটি নিষেধাজ্ঞা আরোপর জন্য বিল পাস হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসে।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার রাতে হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসে এ বিল পাস করা হয়। এতে চীনের নিষেধাজ্ঞার পক্ষে ৪০৭টি ভোট পড়ে এবং নিষেধাজ্ঞার বিপক্ষে মাত্র একটি ভোট পড়ে। খবর বিবিসির।

সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলিমদের ওপর নির্যাতন, ডিটেনশন সেন্টারে আটকে রাখা ও হয়রানির কথা উল্লেখ করে নতুন এ বিল পাস করা হয়।

নতুন এ নিষেধাজ্ঞা বিলে চীনা সরকারের নির্দিষ্ট কর্মকর্তা ও জিনজিয়াংয়ের কমিনিউস্ট পার্টির প্রধান চেন কোয়াঙ্গুওয়ের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।

তবে নতুন এই নিষেধাজ্ঞা অনুমোদন করতে সিনেট ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্বাক্ষর প্রয়োজন। হংকংয়ে চীনা বিরোধীদের সমর্থনে ট্রাম্পের নতুন আইন পাসের একদিন পরেই নতুন এই বিল উত্থাপন করা হলো।

এদিকে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আগে থেকে জিনজিয়াংয়ের ঘটনাকে তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে উল্লেখ করে আসছে।

বিলের বিষয়ে হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসে বলা হয়, আমরা চাই জিনজিয়াং প্রদেশে ১০ লাখ সংখ্যালঘু মুসলিম উইঘুরদের পক্ষে বিশ্ববাসী মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়টি মোকাবেলা করুক।

নতুন এ বিলের ফলে বিশ্বের ক্ষমতাসীন দুই অর্থনৈতিক দেশের মধ্যে চলমান বাণিজ্যিক যুদ্ধ আরও তীব্র হবে বলে ধারণা করছেন বিশ্লেষকরা।

মানবাধিকার সংগঠনগুলো আগে থেকে বলে আসছে জিনজিয়াংজুড়ে ১০ লাখ সংখ্যালঘু মুসলিমদের ডিটেনশন সেন্টারে আটকে রাখা হয়েছে।

তবে চীনা সরকার বলে আসছে সেখানে তাদের শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে।

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *